পায়ের নখের ফাঙ্গাস ভালো করার ৩টি পদ্ধতি জেনে নিন।

গোপন ভিডিওটি দেখতে প্রাপ্তবয়স্করা নিচের ছবি তে ক্লিক করুন। শুধুমাত্র প্রাপ্তবয়স্কদের জন্যে। বাচ্চাদের জন্যে নয়।

এছাড়াও যারা বন্ধ জুতো পড়েন এবং পায়ে ঘামের সমস্যা রয়েছে তারাও পায়ের নখের ফাঙ্গাসের সমস্যায় ভুগে থাকেন। এটি খুবই বিরক্তিকর একটি সমস্যা।

 

নখের আকৃতি অনেক বেশি বড় হয়ে যায়, ফুটে উঠে এবং হলদেটে আকার ধারণ করে যা একেবারেই বিশ্রী লাগে। ঘরে বসেই নিচের পদ্ধতি গুলোর মাধ্যমে দূর করে দিতে পারেন পায়ের নখের ফাঙ্গাস।

১/ বেকিং সোডার ব্যবহার –

কুসুম গরম পানিতে বেকিং সোডা মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে নিন। এই পেস্টটি ফাঙ্গাস আক্রান্ত নখের উপরে লাগিয়ে রাখুন শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত।

 

১৮+ ভিডিওটি দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন। বাচ্চারা ভুলেও ক্লিক করবেনা, দূরে থাকো।

এভাবে দিনে ২/৩ বার করুন যতোদিন পর্যন্ত না ফাঙ্গাস দূর হয়। এছাড়াও জুতোর ভেতরে বেকিং সোডা ছিটিয়ে নিতে পারেন। বেকিং সোডার অ্যাল্কালাইন ফাঙ্গাসের সমস্যা দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী।

২/ হলুদের ব্যবহার –

অলিভ অয়েল বা আমন্ড অয়েলে খানিকটা কাঁচা হলদু কুচি করে কেটে জ্বাল দিয়ে ছেঁকে হলুদের তেল তৈরি করে নিন।

এবার এই হলুদের ১ টেবিল চামচ তেলের সাথে ৩ টেবিল চামচ পানি মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন। এই মিশ্রণটি পায়ের ফাঙ্গাস আক্রান্ত নখে লাগান।

দিনে ৩ বার ব্যবহার করুন। হলুদের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান ফাঙ্গাস ধ্বংস করবে। এর সাথে দিনে ৩০০ মিলিগ্রাম কাঁচা হলুদ খেলে ভালো ফলাফল পাবেন।

 

৩/ ভিক্সের ব্যবহার –

সবচাইতে সহজ উপায়ে ফাঙ্গাস তাড়ানোর একটি উপায় হচ্ছে ভিক্স ভ্যাপোরাবের ব্যবহার। সর্দি, মাথাব্যথার কারণে অনেকেই এই মলমটি ব্যবহার করেন।

এটি ফাঙ্গাস তাড়াতে বেশ সহায়ক। প্রতিদিন ২ বার শুধুমাত্র ভিক্স ফাঙ্গাস আক্রান্ত নখে লাগান। একটি ব্যান্ডএইড দিয়ে নখটি ঢেকে রাখুন। ব্যস, সমস্যার সমাধান।

ভিডিওটি এইখানে, নিচের ছবিতে ক্লিক করে ফ্রি দেখুন ভিডিওটি... পোস্টটি সেয়ার করবেন। আপনার একটি সেয়ারেই বেঁচে যাবে হাজারো মানুষের প্রান।